গর্ভপাত নিষিদ্ধের বিরুদ্ধে পোল্যান্ডজুড়ে নারীদের বিক্ষোভ, সংঘর্ষ

আন্তর্জাতিক

গর্ভপাত নিষিদ্ধ করে পোল্যান্ডের নতুন আইনের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে এসেছে হাজার হাজার নারী। দেশটির অনেক শহরে এ বিক্ষোভ হয়।

বিবিসি জানায়, বৃহস্পতিবার গর্ভপাত নিষিদ্ধ করে নির্দেশ জাতি করে পোল্যান্ডের একটি আদালত। শুধু ধর্ষণের ক্ষেত্রে এবং মায়ের স্বাস্থ্যঝুঁকি থাকলে গর্ভপাতের অনুমতি পাবে নারীরা।

ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে পোল্যান্ডেই গর্ভপাত নিয়ে কঠোর আইন আছে। গত বছর ভ্রূণ নষ্ট করার ঘটনার ৯৮ শতাংশই আইনিভাবে নিষ্পত্তি হয়েছিল। নতুন আইনে গর্ভপাত নিষিদ্ধ হওয়ায় সে সুযোগ আর থাকছে না।

গর্ভপাত নিয়ে প্রতি বছর দুই হাজারের কিছু কম আইনি নিষ্পত্তির মধ্যে যেতে হয় পোল্যান্ডে। তবে নারী বিক্ষোভকারীদের দাবী, প্রতি বছর অন্তত দুই লাখের মতো গর্ভপাতের ঘটনা ঘটে, যা অবৈধভাবে বা দেশের বাইরে গিয়ে করা হয়।

শুক্রবার নতুন এ আইনের বিরুদ্ধে রাজধানী ওয়ারশোসহ পোজনান, রোকলো, ক্রাকো শহরে বিক্ষোভে নামে নারীরা।

করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় পোল্যান্ডে নতুন করে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। দশজনের বেশি মানুষের জড়ো হওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা দেয় কর্তৃপক্ষ।

নিষেধাজ্ঞা ভেঙে হাজার হাজার নারী রাস্তায় নেমে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। পোলিশ উপ-প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের সামনে বিক্ষোভকারীরা জড়ো হলে তাদের সরিয়ে দেয় পুলিশ।

এমন পরিস্থিতিতে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানায়, তাদের দিকে কিছু বিক্ষোভকারী পাথর ছুড়লে তারা পিপার স্প্রে ব্যবহার করে।

৩৪ বছর বয়সী বিক্ষোভকারী মাগদা বলেন, ‘এই দেশের নারীদের সম্মান নেই। কেউই আমাদের কথা শুনছে না।’

দেশটির ফেডারেশন ফর উইম্যান অ্যান্ড ফ্যামিলি প্ল্যানিংয়ের প্রধান ক্রিস্টিনা কাকপুরা বার্তা সংস্থা এএফপিকে, ‘দেশের অর্ধেক জনসংখ্যা নারীদের জন্য এটা অমর্যাদাকর। আমরা এটি ভুলব না।’❐

Share on Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *