ট্রাম্পের চিকিৎসায় রেমডিসিভির

যুক্তরাষ্ট্র

করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে রেমডিসিভির দিতে শুরু করেছেন চিকিৎকেরা।

হোয়াইট হাউসের চিকিৎসক শন কনলি বলেন, আমি আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি প্রেসিডেন্ট ভালো আছেন। তাকে অক্সিজেন দিতে হচ্ছে না।

তিনি বলেন, তবে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে আমরা রেমডিসিভির থেরাপি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এরইমধ্যে প্রেসিডেন্টকে ওষুধের প্রথম ডোজ দেয়া হয়েছে। তিনি খুব শান্তভাবে বিশ্রাম নিচ্ছেন।

এর আগ দেওয়া এক বিবৃতিতে ডা. কনলি বলেছিলেন, সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে হোয়াইট হাউসে থাকতে ট্রাম্পকে রেজেনেরন ফর্মাসিটিক্যালের পরিক্লোনল অ্যান্ডিবডি ককটেল (REGN-Cov2) দেয়া হয়।

ওই ওষুধটি শরীরে ভাইরাসের বিস্তার হ্রাস করে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠতে সহায়তা করে।

এর আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প এক ভিডিও বার্তায় বলেন, আমি খুবই ভালো বোধ করছি। করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর শুক্রবার তিনি প্রথমবারে মতো কোনো বার্তা দিলেন।

তিনি বলেন, ব্যাপক সমর্থন দেয়ায় সবাইকে আমি ধন্যবাদ দিতে চাই।

টুইটারে পোস্ট করা সংক্ষিপ্ত ভিডিওবার্তায় তিনি বললেন, আমি ওয়াল্টার রিড হাসপাতালে যাচ্ছি। আমি মনে করি, আমি সুস্থ বোধ করছি। কিন্তু সবকিছু ভালোভাবে চলছে, আমরা এমনটাই নিশ্চিত হতে যাচ্ছি।

মেলানিয়াও সুস্থ বোধ করছেন বলে জানান যুক্তরাষ্ট্রের এই রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট।

এদিকে করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দ্রুত সুস্থতা কামনা করে টুইটারে পোস্ট দিয়েছেন তার মেয়ে ইভানকা ও ছেলে এরিক।

বিবিসির এক খবরে এমন তথ্য জানা গেছে। ট্রাম্প বর্তমানে ওয়াল্টার রিড ন্যাশনাল মিলিটারি মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি হয়েছেন।

হোয়াইট হাউস বলছে, করোনা সংক্রমিত হওয়ায় কয়েকদিন হাসপাতালে কাটাতে হবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে। তার চিকিৎসায় পরীক্ষামূলক ওষুধ ব্যবহার করছেন চিকিৎসকেরা।

ইভানকা টুইটে জানান, আপনি যোদ্ধা এবং একে পরাস্ত করবেন। আমি তোমাকে ভালোবাসি বাবা।

টুইটে একটি ভিডিও বার্তাও জুড়ে দিয়েছেন ইভানকা। ওই ভিডিও বার্তাটি হাসপাতালে যাওয়ার আগে রেকর্ড করেন ট্রাম্প।

এদিকে টুইটারে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে ট্রাম্প বলেন, আমার মনে হচ্ছে আমি খুব ভালো আছি। তবে আসলেই সবকিছু ঠিকঠাক আছে কিনা; তা নিশ্চিত হতে কিছু পরীক্ষা করতে হবে। ফার্স্ট লেডিও খুব ভালো আছেন। আপনাদের ‍অসংখ্য ধন্যবাদ।

ট্রাম্পকে ওলটার রিড হাসপাতালের প্রেসিডেন্টশিয়াল স্যুটে ভর্তি করা হয়েছে। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আগামী কয়েদিন ট্রাম্প সেখানে থেকেই নিজ দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানান তার প্রেস সচিব কেইলি ম্যাকএন্যানি।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টদের বার্ষিক চেক-আপের জন্য এই স্যুটে রাখা হয়। ম্যাকএন্যানি বলেন, মৃদু উপসর্গ দেখা দিলেও প্রেসিডেন্ট ‍মানসিকভাবে চাঙ্গা আছেন এবং আজ সারাদিন কাজ করেছেন।

অনলাইনে পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যায় শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে ট্রাম্প সমর্থকদের ছোট একটি দল ‘ট্রাম্প ২০২০’ লেখা পতাকা হাতে ওলটার রিড হাসপাতালের সামনে জড়ো হয়েছেন। তাদের বেশিরভাগের মুখেই মাস্ক নেই।❐

Share on Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *