মারা গেলেন কিশোরগঞ্জের কিংবদন্তি ফুটবলার চুনি গোস্বামী

খেলাধুলা

‘ভারতের সর্বকালের সেরা ক্রীড়াবিদ’ ও ভারত জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক চুনি গোস্বামী মারা গেছেন। তিনি কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার যশোদল ইউনিয়নের গোঁসাই পাড়া গ্রামের অধিবাসী ছিলেন।

আজ ৩০ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দক্ষিণ কোলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা যান। তার ছেলে সুদীপ্ত গোস্বামী মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

মৃত্যুকালে চুনি গোস্বামীর বয়স হয়েছিল ৮২ বছর।

ভারতবর্ষের এ কিংবদন্তি ফুটবলারের সঙ্গে ফুটবলের রাজা পেলের বন্ধুত্ব ছিল। এছাড়াও আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলের ফুটবলারদের দারুণ সখ্যতা ছিল তার।

১৯৩৮ সালের ১৫ জানুয়ারি অবিভক্ত বাংলার ময়মনসিংহ জেলার কিশোরগঞ্জ মহকুমার সদরের যশোদল গোঁসাই পাড়া গ্রামের সম্ভ্রান্ত গোস্বামী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। চুনীর পৈত্রিক নাম সুবিমল গোস্বামী। তবে পরিচিত মহলে তিনি চুনী গোস্বামী নামে পরিচিত ছিলেন।

ভারতবর্ষের সর্বকালের সেরা ফুটবল অধিনায়কদের একজন চুনি গোস্বামী। তিনি ১৯৬২ সালের এশিয়ান গেমসে সোনাজয়ী ভারতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন তিনি। তার নেতৃত্বে এশিয়ান গেমসে স্বর্ণ জয় ছাড়াও ১৯৬৪ সালে এশিয়ান কাপে রানার্স-আপ হয়েছিল ভারত।

তার ফুটবলজীবন ছিল অজস্র কীর্তিতে উজ্জ্বল। তবে তার মধ্যে এশিয়ান গেমসে সোনা জয়ই সেরা হিরণ্ময় মুকুট।

১৯৫৭ সালে আন্তর্জাতিক ফুটবলে প্রথমবার পা রাখেন চুনি গোস্বামী। ১৯৬৪ সালে মাত্র ২৭ বছর বয়সে তাকে শেষবার দেখা গিয়েছিল জাতীয় দলের হয়ে।

ওই সময়ের মধ্যে এশিয়ান গেমসে চ্যাম্পিয়ন হওয়া ছাড়াও চুনী গোস্বামীর নেতৃত্বে ১৯৬৪ সালে এশিয়ান কাপে রানার-আপ হয়েছিল ভারত।

ছয় মাস পরে মারডেকা ফুটবলের ফাইনালেও উঠেছিল দল। কিন্তু, ফাইনালে জয় আসে নি। ক্লাব ফুটবলে তিনি শুধু মোহনবাগানের হয়েই খেলেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই বয়সজনিত কারণে ভুগছিলেন তিনি। গত কয়েক মাস ধরে সুগার, প্রসট্রেট ও স্নায়ুর সমস্যায় ভুগছিলেন।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে এ অবস্থায় তাকে যোধপুর পার্কের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই আজ বিকেলে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়।◉

Share on Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *