যুক্তরাষ্টের বিশ্ববিদ্যালয় স্কলারশিপের সুযোগ

শিক্ষা

তেল শোধনাগারে ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলার ‘উচিত জবাব’ দেবে বলে জানিয়েছে সৌদি আরব। হামলার পেছনে আবারও ইরানকে দায়ী করেছে দেশটি। এ হামলার বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ শক্তিশালী দেশটি।

সৌদির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবায়ের বলেন, হামলার জন্য যেসব অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে সেগুলো ইরানের। এই হামলার পূর্ণ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।রিয়াদে এক সংবাদ সম্মেলনে আদেল আল জুবায়ের বলেন, তারা মিত্র দেশগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন এবং পূর্ণ তদন্ত শেষ করার পর যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে কী ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হবে সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তেলক্ষেত্রে হামলা চালানো হয়েছে উত্তর দিক থেকে। ইয়েমেনের দিক থেকে এই হামলা চালানো হয়নি বলে উল্লেখ করেন তিনি। তবে ঠিক কোন জায়গা থেকে হামলা চালানো হয়েছে সেটি সুনির্দিষ্টভাবে বলেননি সৌদির এই মন্ত্রী। অপরদিকে, সৌদির তেলক্ষেত্রে হামলার কথা বারবার অস্বীকার করে আসছে ইরান।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে সৌদিতে বাড়তি সৈন্য পাঠানোর ঘোষণার পর ইরানের এক শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তা বলেছেন, যে কোনো ধরনের আগ্রাসন ধ্বংস করার জন্য ইরানও প্রস্তুত আছে।

Share on Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *