Our Concern
Ruposhi Bangla
Hindusthan Surkhiyan
Radio Bangla FM
Third Eye Production
Anuswar Publication
Ruposhi Bangla Entertainment Limited
Shah Foundation
Street Children Foundation
February 1, 2023
Homeখেলাধুলাতোপের মুখে মার্টিনেজ

তোপের মুখে মার্টিনেজ

তোপের মুখে মার্টিনেজ

৩৬ বছর পর দেশে ফিরে তুমুল সংবর্ধনায় সিক্ত হয় আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা। ছাদখোলা বাসে করে দেশটির রাজধানী বুয়েন্স আয়ার্স প্রদক্ষিণ করে আলবিসেলেস্তেরা। তবে ট্রফি প্যারেডের সময় এমবাপ্পের পুতুল নিয়ে ফরাসি তারকাকে রীতিমতো বিদ্রুপ করেছেন দেশটির গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। এরই পরিপ্রক্ষিতে তোপের মুখে পড়েছেন তিনি। ২০১৮ বিশ্বকাপে ফ্রান্সকে বিশ্বকাপ জেতানো ডিফেন্ডার আদিল রামি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রীতিমতো ধুয়ে দিয়েছেন মার্টিনেজকে। নিজের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে মার্টিনেজকে উদ্দেশ করে লিখেছেন, ‘সবচেয়ে ঘৃণিত মানুষ।’

কাতার বিশ্বকাপে মার্টিনেজের গোলকিপিং নৈপুণ্যে নেদারল্যান্ডস ও ফ্রান্সের বিপক্ষে টাইব্রেকারে জয় পায় আর্জেন্টিনা। তাছাড়া শেষ ষোলোতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শেষ মিনিটে তার সেভে জয় নিশ্চিত করে আর্জেন্টিনা। সবকিছু বিবেচনায় আসরে সেরা গোলরক্ষক নির্বাচিত হয়ে গোল্ডেন গ্লাভস জেতেন মার্টিনেজ। তবে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের দিন বিতর্কের জন্ম দেন তিনি। অ্যাস্টন ভিলার এই গোলরক্ষক পোডিয়ামের ওপরে দাঁড়িয়ে তার গোল্ডেন গ্লাভস ট্রফিটি নিজের তলপেটে চেপে ধরেন। পরে পুরস্কারকে মাথার ওপরে তুলেও নাড়াতে দেখা যায়। এরপরই চলে মার্টিনেজকে নিয়ে তুমুল সমালোচনা। বিষয়টি ভালোভাবে নিতে পারেনি ফুটবলবিশ্ব। ট্রফি পেয়ে এমন অশ্লীল ভঙ্গি কেউই মেনে নিতে পারছেন না।

এদিকে রামি মনে করেন, এবারের আসরে গোল্ডেন গ্লাভসের দাবিদার মরক্কোর ইয়াসিন বুনো। ফরাসি ডিফেন্ডার তার আরেকটি ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে লেখেন, ‘এবারের আসরে সবচেয়ে কম মাত্র ৩ গোল হজম করেছে বুনো। তার গোল্ডেন গ্লাভস পাওয়া উচিত ছিল। রামি আরো জানান, আর্জেন্টিনাকে এমবাপ্পে এতটাই ভয়ে রেখেছিল যে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর বিশ্বকাপের বদলে পিএসজির ২৪ বছরের এ তারকাকে নিয়ে উদযাপন শুরু করে দিয়েছে।

কাতার থেকে আর্জেন্টিনায় ফেরার পর ছাদখোলা বাসে বুয়েন্স আয়ার্সে মেসি-মার্টিনেজদের নিয়ে শোভাযাত্রা বের করা হয়। সেদিন ছিল এমবাপ্পের জন্মদিনও। তাকে নিয়ে মজা করতে ছাদখোলা বাসে একটি পুতুল হাতে নিয়ে দাঁড়ান মার্টিনেজ। সেই পুতুলের মুখটা ছিল এমবাপ্পের। অর্থাৎ পুতুলের মুখে এমবাপ্পের মুখের ছবি বসানো হয়। এই ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর পক্ষে-বিপক্ষে তর্ক-বিতর্ক শুরু হয়েছে।

ফ্রান্সকে টাইব্রেকারে হারিয়ে ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপ জিতেছে আর্জেন্টিনা। ওই ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেছিলেন এমবাপ্পে। তবু তার দল জিততে পারেনি। এরপর থেকেই একটানা এমবাপ্পেকে নিয়ে মজা করে যাচ্ছেন মার্টিনেজ। ড্রেসিংরুমের উদযাপনের সময় হুট করে সবাইকে থামিয়ে মার্টিনেজ বলেন, ‘এক মিনিটের নিরবতা এমবাপ্পের জন্য, যে মরে গেছে!’ সেই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে শুরু হয় সমালোচনা।

কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালের আগে এমবাপ্পের করা মন্তব্যের জবাব দিয়েছিলেন মার্টিনেজ। বিশ্বকাপ শুরু আগে লাতিন আমেরিকার ফুটবল নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন ফরাসি তারকা এমবাপ্পে। তিনি বলেছিলেন, ‘ইউরোপিয়ান দলগুলো উঁচুমানের টুর্নামেন্ট খেলে। আমরা যেসব টুর্নামেন্ট খেলি দক্ষিণ আমেরিকার কোনো দল তার সমপর্যায়ের টুর্নামেন্ট খেলে না। আমাদের থেকে অনেক পিছিয়ে লাতিন আমেরিকার দলগুলো।’ সেসময় তিনি বেশ তোপের মুখে পড়েছিলেন এই মন্তব্যের জের ধরে। এমবাপ্পেকে এক হাত নিয়ে মার্টিনেজ বলেন, ‘লাতিন ফুটবল নিয়ে তার ধারণা নেই। সে তো কখনও লাতিন আমেরিকায় খেলেনি। যেহেতু আপনার সেই অভিজ্ঞতা নেই, তাই এটা নিয়ে কথা না বলাই ভালো। তবে এসব কোনো ব্যাপার না। আমরা গ্রেট একটা দল, সেটা স্বীকৃত।’

Share With:
Rate This Article
No Comments

Leave A Comment