Our Concern
Ruposhi Bangla
Hindusthan Surkhiyan
Radio Bangla FM
Third Eye Production
Anuswar Publication
Ruposhi Bangla Entertainment Limited
Shah Foundation
Street Children Foundation
July 21, 2024
Homeআন্তর্জাতিকভারতে যাবেন মোদিকে লাদেনের সঙ্গে তুলনা করা পাক মন্ত্রী

ভারতে যাবেন মোদিকে লাদেনের সঙ্গে তুলনা করা পাক মন্ত্রী

ভারতে যাবেন মোদিকে লাদেনের সঙ্গে তুলনা করা পাক মন্ত্রী

মে মাসেই ভারতে যাচ্ছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তথা পাকিস্তানের সাবেক রাষ্ট্রপ্রধান বেনজির ভুট্টোর ছেলে বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি। বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গোয়ায় অনুষ্ঠিত সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে বিলাওয়ালের নেতৃত্বেই পাকিস্তানের একটি প্রতিনিধিদল উপস্থিত থাকবে।

পাক পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মুমতাজ জারাহ বালোচ সাপ্তাহিক সংবাদ সম্মেলনে জানান, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়েই প্রতিবেশী দেশে যাচ্ছেন বিলাওয়াল। ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শপথে উপস্থিত ছিলেন পাকিস্তানের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নেওয়াজ শরিফ। তারপর বিগত ৯ বছরে আর কোনো পাকিস্তানি রাষ্ট্রপ্রধান কিংবা শীর্ষ নেতৃত্ব ভারত সফরে যাননি।

আগামী ৪ থেকে ৫ মে ভারতের গোয়ায় এসসিও বৈঠকের আসর বসতে চলেছে। রাশিয়া, চীন, পাকিস্তান, ভারতকে নিয়ে গঠিত এসসিও নিরাপত্তাগত এবং রাজনৈতিক দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ একটি গোষ্ঠী। ২০১৭ সালে ভারত এই গোষ্ঠীর পূর্ণ সদস্য হয়। এই গোষ্ঠীর পর্যবেক্ষক সদস্য দেশগুলো হলো আফগানিস্তান, বেলারুশ, ইরান এবং মঙ্গোলিয়া। এ ছাড়াও অন্যতম সহযোগী সদস্য হিসেবে রয়েছে আর্মেনিয়া, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, তুরস্ক, কম্বোডিয়া। আঞ্চলিক অথচ ভূরাজনীতির অন্যতম নিয়ন্ত্রক হিসেবে এই গোষ্ঠী সদস্য দেশগুলোর মধ্যে অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক এবং সামরিক বোঝাপড়া বাড়াতে কাজ করে।

পাকিস্তানের পক্ষ থেকে বিলাওয়ালের সফর প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, এসসিও গোষ্ঠীর প্রতি তাদের দায়বদ্ধতার কথা মাথায় রেখেই তারা এই বৈঠকে যোগদান করবে। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শেষ ভারত সফর হয়েছে ২০১১ সালে, হিনা রাব্বানি তখন ভারতে গিয়েছিলেন।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূত্রও বিলাওয়ালের ভারত সফরের কথা জানিয়েছে। সূত্র জানাচ্ছে, এটা ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কের ক্ষেত্রে একটা বড় পদক্ষেপ।

প্রসঙ্গত, এই বিলাওয়ালই গত ডিসেম্বরে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে যোগ দিয়ে বলেছিলেন, ‘ওসামা বিন লাদেন নিহত হয়েছেন। কিন্তু গুজরাটের কসাই এখনো জীবিত। তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।’ যুক্তরাষ্টের মাটিতে দাঁড়িয়ে পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ওই মন্তব্যের পরই রাজনৈতিক উত্তেজনার পারদ চড়ে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা, ডয়চে ভেলে

Share With:
Rate This Article
No Comments

Leave A Comment