Our Concern
Ruposhi Bangla
Hindusthan Surkhiyan
Radio Bangla FM
Third Eye Production
Anuswar Publication
Ruposhi Bangla Entertainment Limited
Shah Foundation
Street Children Foundation
July 21, 2024
Homeআন্তর্জাতিকসম্ভাব্য মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে কারা এই নেতজাহ ইয়েহুদা?

সম্ভাব্য মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে কারা এই নেতজাহ ইয়েহুদা?

সম্ভাব্য মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে কারা এই নেতজাহ ইয়েহুদা?

ইসরাইলের সামরিক বাহিনীর একটি ইউনিট বা ব্যাটালিয়নের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়ার কথা ভাবছে যুক্তরাষ্ট্র। ব্যাটালিয়নটির নাম নেতজাহ ইয়েহুদা। এটি ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর সবচেয়ে কুখ্যাত ইউনিটগুলোর অন্যতম।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর এরই মধ্যে ব্যাটালিয়নটির ওপর নিষেধাজ্ঞার সুপারিশ করেছে। বলা হয়েছে যে, ওয়াশিংটন ইসরাইলের এই সামরিক ইউনিটটির কাছে অস্ত্র বিক্রি করবে না। কারণ ব্যাটালিয়নটির বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিশ্বাসযোগ্য অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নেতজাহ ইয়েহুদা আসলে কারা? এটি ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর (আইডিএফ) একটি বিশেষ ইউনিট বা ব্যাটালিয়ন। পৃথকভাবে আলট্রা অর্থোডক্স জিউইশ তথা অতি গোঁড়া ইহুদি সেনাদের নিয়ে ১৯৯৯ সালে ব্যাটালিয়নটি গঠন করা হয়।

নেতজাহ ইয়েহুদা ব্যাটালিয়নের ওয়েবসাইট অনুসারে, ব্যাটালিয়নে প্রায় ১ হাজার সেনা কাজ করছে। তারা এখন অধিকৃত পশ্চিম তীরে মোতায়েন রয়েছে। ইসরাইলের সব নাগরিকের জন্য কমপক্ষে দুই বছর সামরিক বাহিনীতে যোগদান বাধ্যতামূলক। তবে এক্ষেত্রে আলট্রা অর্থোডক্স জিউইশ নাগরিকদের জন্য ছাড় রয়েছে।

তা সত্ত্বেও ইসরাইল সরকার দীর্ঘদিন ধরে সশস্ত্র বাহিনীতে বেশি বেশি অতি গোঁড়া ইহুদিদের নিয়োগ দেয়ার চেষ্টা করে আসছে। সেই প্রচেষ্টারই ফল নেতজাহ ইয়েহুদা। কিন্তু ফিলিস্তিনিদের ওপর একের পর এক সহিংস কর্মকাণ্ডের জন্য বিতর্কের মুখে পড়ে ব্যাটালিয়নটি।

এর সেনারা ফিলিস্তিনি বন্দিদের ওপর নির্যাতন ও অত্যাচারের জন্য দোষীও সাব্যস্ত হয়। ২০২২ সালের শেষের দিকে ওমর আসাদ নামে ৮০ বছর বয়সী এক ফিলিস্তিনি-আমেরিকানকে হত্যাসহ আরও কিছু অভিযোগ উঠলে এগুলো নিয়ে তদন্ত শুরু করে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর।

শনিবার (২০ এপ্রিল) মার্কিন বার্তা সংস্থা অ্যাক্সিওস জানায়, নেতজাহ ইয়েহুদার ওপর নিষেধাজ্ঞার দেয়ার কথা ভাবছে যুক্তরাষ্ট্র। টাইমস অব ইসরাইলের প্রতিবেদন মতে, এই প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্র ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে এমন পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে।

মার্কিন গণমাধ্যম অ্যাক্সিওস নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নেতজাহ ইয়েহুদা নিষেধাজ্ঞায় পড়লে এর সেনারা মার্কিন অস্ত্র ব্যবহার করতে পারবে না। এছাড়া এই ইউনিটের সেনাদের মার্কিন বাহিনীর সাথে প্রশিক্ষণ বা মার্কিন অর্থায়নে কোনো কার্যকলাপে অংশ নিতে পারবে না।

ইসরাইলি কর্মকর্তারা এরই মধ্যে মার্কিন এই পরিকল্পনার নিন্দা জানিয়েছেন। তারা বলছেন, সেনা ইউনিটের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে চূড়ান্ত সীমা অতিক্রম।

শনিবার (২০ এপ্রিল) রাতে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, ‘আইডিএফের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া উচিত হবে না। আমাদের সৈন্যরা সন্ত্রাসী দানবদের সঙ্গে লড়াই করছে।’

অতি কট্টরপন্থী ইহুদি নেতা হিসেবে পরিচিত ও ইসরাইলি জাতীয় নিরাপত্তামন্ত্রী ইতামার বেন গভির বলেন, ‘আমাদের সেনাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে চূড়ান্ত সীমা অতিক্রম করা।’

Share With:
Rate This Article
No Comments

Leave A Comment