Our Concern
Ruposhi Bangla
Hindusthan Surkhiyan
Radio Bangla FM
Third Eye Production
Anuswar Publication
Ruposhi Bangla Entertainment Limited
Shah Foundation
Street Children Foundation
June 18, 2024
Homeআন্তর্জাতিকপৃথিবীর সব রেকর্ড ভেঙে ৩০ কোটি টাকায় বিক্রি হওয়া হুইস্কির রহস্য

পৃথিবীর সব রেকর্ড ভেঙে ৩০ কোটি টাকায় বিক্রি হওয়া হুইস্কির রহস্য

পৃথিবীর সব রেকর্ড ভেঙে ৩০ কোটি টাকায় বিক্রি হওয়া হুইস্কির রহস্য

পৃথিবীর সব রেকর্ড ভেঙে আজ শনিবার এক বোতল হুইস্কি বিক্রি হয়েছে ২৭ লাখ মার্কিন ডলারে। বর্তমান বাজারমূল্য অনুযায়ী, বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৩০ কোটি টাকা।

এ বিষয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘ম্যাকালান অ্যাডামি-১৯২৬’ নামে স্কটিশ হুইস্কির ওই বোতলটি নিলামে কিনে নিয়েছে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান। আন্তর্জাতিক নিলাম সংস্থা সোথবি এই নিলামের আয়োজন করে। হুইস্কির বোতলটি যে দামে বিক্রি হবে বলে আশা করা হয়েছিল—তার দ্বিগুণ দামে বিক্রি হয়েছে বলে জানিয়েছে নিলাম কর্তৃপক্ষ।

নিলামের নেতৃত্ব দিয়েছেন সোথবির হুইস্কি বিভাগের বৈশ্বিক প্রধান জনি ফলি। জানিয়েছেন, বিক্রির পর বোতলটি হস্তান্তরের আগে এর ভেতর থেকে তিনি এক ফোঁটা হুইস্কি চেখে দেখার অনুমতি পেয়েছেন ইতিপূর্বে।

এক ফোঁটা হুইস্কি চেখে দেখার অভিজ্ঞতা থেকে জনি বলেন, ‘এটা খুবই সমৃদ্ধ। এতে আছে অনেক শুকনো ফলের সম্মিলন, যা আপনি আশা করেন। আছে প্রচুর ঝাঁঝ এবং বিপুল ওক কাঠের মিশ্রণ।’

কিন্তু এত দামে বিক্রি হওয়া ওই হুইস্কির আর কী কী বিশেষত্ব আছে—এই প্রশ্নের উত্তরে জানা গেছে, ১৯২৬ সালে তৈরির পর ওই হুইস্কির চালানটিকে অন্ধকারের মধ্যে ওক কাঠের পিপায় টানা ৬০ বছর রেখে দিয়েছিল উৎপাদক প্রতিষ্ঠানটি। ১৯৮৬ সালে পিপাটি খুলে মোট ৪০টি বোতলে ওই হুইস্কি রাখা হয়।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই ৪০ বোতল হুইস্কির বিক্রির জন্য ছিল না। এর মধ্য থেকে কয়েক বোতল ম্যাকালান-এর শীর্ষ ক্লায়েন্টদের মধ্যে উপহার হিসেবে সরবরাহ করা হয়েছিল। তবে ২০১৯ সালে এর মধ্য থেকে এক বোতল হুইস্কি বিক্রি হয়েছিল ১৫ লাখ ডলারে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা সাড়ে ১৬ কোটি টাকার বেশি।

গত মাসে জনি ফলি বলেছিলেন, ‘ম্যাকালান-১৯২৬ এমন একটি হুইস্কি যা প্রত্যেক নিলামকারী বেচতে চাইবেন এবং প্রত্যেক সংগ্রাহক তা কিনতে চাইবেন।’

সোথবি জানিয়েছে, ১৯২৬ সালের সেই পিপা থেকে বের করা হুইস্কি যে ৪০টি বোতলে রাখা হয়েছিল সেই বোতলের সবগুলো দেখতে একই রকম নয়। এর মধ্যে মাত্র দুটি বোতলে কোনো লেবেল লাগানো ছিল না। ১৪টি বোতলে লাগানো ছিল ম্যাকালান কোম্পানির আইকনিক ‘ফাইন অ্যান্ড রেয়ার’ লেবেল। ১২টি বোতলে ছিল পপ শিল্পী স্যার পিটার ব্ল্যাকের লেবেল। বাকি ১২টি বোতলে লাগানো লেবেলটি ছিল ইতালিয়ান চিত্রশিল্পী ভ্যালেরিও অ্যাডামির স্মরণে। রেকর্ড দামে বিক্রি হওয়া হুইস্কিটিও অ্যাডামি লেবেলের।

১২ বোতল ম্যাকালান অ্যাডামির মধ্যে বর্তমানে কয়টা পৃথিবীতে অবশিষ্ট আছে সেই সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ২০১১ সালে এই লেবেলের একটি বোতল জাপানে ভূমিকম্পনের ফলে নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। আর বিশ্বাস করা হয়—ওই ১২টি বোতলের মধ্যে একটি নিশ্চিতভাবে খোলা হয়েছিল এবং পান করা হয়েছিল।

Share With:
Rate This Article
No Comments

Leave A Comment