Our Concern
Ruposhi Bangla
Hindusthan Surkhiyan
Radio Bangla FM
Third Eye Production
Anuswar Publication
Ruposhi Bangla Entertainment Limited
Shah Foundation
Street Children Foundation
June 13, 2024
Homeআন্তর্জাতিকসৌদি আরব নিয়ে সোমবার ঘোষণা দেবেন বাইডেন

সৌদি আরব নিয়ে সোমবার ঘোষণা দেবেন বাইডেন

সৌদি আরব নিয়ে সোমবার ঘোষণা দেবেন বাইডেন

জো বাইডেন প্রশাসন মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদনে জামাল খাশোগিকে হত্যায় সৌদি যুবরাজকে দায়ী করার পর এবার সৌদি আরবকে নিয়ে একটি ঘোষণা দিতে যাচ্ছে।

সোমবার এ বিষয়ে একটি ঘোষণা দেওয়া হবে বলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানিয়েছেন। খবর রয়টার্সের।

সৌদি যুবরাজকে শাস্তি দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে শনিবার বাইডেন বলেন, সৌদি আরবের সঙ্গে সাধারণভাবে যা করতে যাচ্ছি সে বিষয়ে সোমবার একটি ঘোষণা দেওয়া হবে।

ওয়াশিংটনের ঘোষণায় ঠিক কী থাকছে, সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলেননি তিনি। তবে সৌদির বিরুদ্ধে বাইডেন প্রশাসন থেকে নতুন কোনো তাৎপর্যপূর্ণ পদক্ষেপ আসবে না বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তা।

শুক্রবার মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যায় সৌদি আরবের সিংহাসনের উত্তরাধিকারী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান অনুমোদন দিয়েছিলেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসনের প্রকাশিত প্রতিবেদন বলছে, সৌদি সরকারের কঠোর সমালোচক জামাল খাসোগিকে ধরে আনতে কিংবা হত্যা পরিকল্পনায় যুবরাজের সায় ছিল।

তিনটি কারণে যুবরাজের সবুজ সংকেত ছিল বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

২০১৮ সালের ২ অক্টোবর ইস্তানবুলের সৌদি কনস্যুলেটে ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে নির্মমভাবে হত্যা করে সৌদি গুপ্তচরেরা। পরে তার লাশ কেটে টুকরো টুকরো করে দেওয়া হয়েছে।

পশ্চিমা বিশ্বে এমবিএস নামে পরিচিত যুবরাজ শুরু থেকেই হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

দীর্ঘদিন ধরেই সৌদি আরবের ঘনিষ্ঠ মিত্র যুক্তরাষ্ট্র। ট্রাম্পের শাসনামলে সেটি আরও পোক্ত হয়। তবে বাইডেন দায়িত্ব নেওয়ার পর সাংবাদিক খাশোগি হত্যা ও ইয়েমেন যুদ্ধ কেন্দ্র করে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কে শীতলতার আভাস স্পষ্ট হয়েছে।

মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রকাশের পর সৌদি আরবের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় একটি বিবৃতি দিয়েছে। এতে উল্লেখ করা হয়েছে, সৌদির নেতৃত্ব সম্পর্কে এই প্রতিবেদনে নেতিবাচক, মিথ্যা এবং অগ্রহণযোগ্য তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, এই ‘বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ডের’ বিচার করেছেন সৌদি আরবের আদালত। যারা এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত, তাদের সাজাও হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে আরাবিয়া ফাউন্ডেশনের সাবেক প্রধান আলি শিহাবি মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রকাশের পর টুইটারে লিখেছেন, এই প্রতিবেদনে এমন কিছু নেই, যা আগে বলা হয় নি।

এছাড়া যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে দোষী সাব্যস্ত করার মতো কোনো তথ্যপ্রমাণ এতে নেই। যুবরাজের বিরুদ্ধে জোরালো কোনো প্রমাণ এই প্রতিবেদনে নেই।

মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার এই প্রতিবেদন নিয়ে সৌদি আরবের সংবাদপত্র ও টেলিভিশনগুলো কোনো প্রতিবেদন প্রকাশ করে নি।

সৌদির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম আল আরাবিয়ায় শুধু সন্ধ্যার খবরে ছোট করে একটি প্রতিবেদন প্রচার করা হয়েছে। কিন্তু এতেও তথ্যপ্রমাণের বিষয়টিকেই প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।

তবে অধিকারকর্মীরা সৌদি আরবের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের আহ্বান জানাচ্ছেন। তারা যুবরাজ সালমানের বিরুদ্ধেও নিষেধাজ্ঞা চাইছেন।

জামাল খাশোগি হত্যার তদন্তে স্বচ্ছতা আনায় প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে ধন্যবাদ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন ডেমোক্রেসি ফর দ্য আরব ওয়ার্ল্ড নাও।❐

Share With:
Rate This Article
No Comments

Leave A Comment